আমি ও একটি সিগারেট

আমি আজ কেন জানি ভোরে উঠতে পারলাম না। হয়ত কাল রাতে ভাল স্বপ্ন দেখার কারণে।। কিন্তু স্বপ্ন সম্পূর্ণ হওয়ার আগেই মায়ের বকাবকিতে উঠতে হল। তারপর ব্রাশটা হাতে নিলাম।। ব্রাশটা হাতে নিয়ে মায়ের সব বকাবকি উপেক্ষা করে রাস্তায় হাটতে হাটতে ব্রাশ করতে লাগলাম।। তখনই দেখলাম কে যেন বলল ভাই ভাল আছেন?? ঘুম ঘুম চোখে দেখি রাজু। হঠাৎ কেন জানি নিকোটিন এর গন্ধ পেলাম।। তখন হাল্কা চোখটা মুছে বলি কিরে ভাল আসছ।। ও আছি বলে হেটে চলে গেল তখন বুঝলাম সিগারেট টা ওর হাতে ছিল তাই নিকোটিন এর গন্ধ পেলাম।। পরে ধারণা ভুল হল যখন
আমি আমার সামনে একটা অর্ধ দগ্ধ সিগারেট দেখলাম।। হঠাৎ যেন সিগারেট টা কথা বলে উঠল।। আমি ভাবলাম আমার মনের ভুল।। তাই একটা হাই তুলে বাড়ির দিকে যাব শুনি কে যেন ডাকছে আমায় পিছন থেকে।। আমি ফিরে দেখি কেউ নেই। পরে কে যেন বলল নিচে দেখ বোকা।। দেখে ত পুরা হতবাক।

আরে সিগারেট টা কথা বলছে।। আরে তুই কথা বলছিস।।
সিগারেট : কথা বললে কি তোর কোন ক্ষতি হচ্ছে!!
আমি: তাই নয় কিন্তু অবাক হচ্ছি!!
সিগারেট: কেন?
আমি: তুই ত জড় বস্তু।
সিগারেট : তুই আমায় নিয়ে ভাবছিস তাই ভাবলাম কথা বলি তোর সাথে।।
আমি: আমি তোর সাথে কথা বলতে চাই না….
সিগারেট :কেন??
আমি: তুই বেটা অনেক খারাপ।। তুই আমাদের তরুণ সমাজ কে ধ্বংস করে দিচ্ছিস।। তোর কারণে হচ্ছে নানা ফুসফুসীয় রোগ।। নষ্ট করছিস অর্থ। অবক্ষয় ঘটাচ্ছিস সমাজের।।…
কথার মাঝে থামিয়ে দিয়ে সিগারেট বলল:
কেন আমি কি তোর তরুণ সমাজ কে বলছি খাও আমাকে!! নাকি আমি নিজেকে বিনামূল্য এ বিলিয়ে দিচ্ছি!! এমনকি আমার পেকেটের উপর লেখা থাকে ‘ধুমপান ক্যান্সারের কারণ’।। তবুও তোরা খাছ তাতে আমার কি দোষ বল।
আমি: (মৃদু স্বরে) তুই ও ত একটু বুঝাতে পারছ যে তোকে খাওয়া ভাল না।।
সিগারেট : আমার বয়েই গেছে।
আমি: কেন!!
সিগারেট : আমাকে আবিষ্কার করছে মানুষ।। ত দোষটা তোদের। সুতরাং এটা নিয়ে তোদের সচেতন হতে হবে।। নিজের ভাল পাগলে ও বুঝে। তোরা না বুঝলে আমার কি করার আছে বল।।
আমি: বুঝছি আমি।।
সিগারেট: তুই বুঝলে হবে না সবাইরে বুঝাইতে হবে।। বুঝছ সম্রাট।
আমি: তুই দেখি আমার নাম ও জানছ।
সিগারেট : হুম সব জানি।।
তখন একটা দমকা হাওয়া এসে সিগারেট কে উরিয়ে নিয়ে গেল।। আর আমার বার্তালাপ অসম্পূর্ণ রইল।। মনে দুঃখ রইল ও সিগারেট হয়েও বুঝে ও শরীরের জন্য খারাপ কিন্তু যারা বুঝা দরকার তারা বুঝে না।। এই ধোয়া খেয়ে যে কি মজা পাই বুঝি না! বাড়ি থেকে মায়ের ডাক শুনে আমার চিন্তা বন্ধ হল।। তাড়াতাড়ি মুখ ধুয়ে খেতে গেলাম।। অন্যের ভাল ভাবতে গিয়ে শেষে না ঠান্ডা খেতে হয়।
যারা নিজের ভাল বুঝে না তাদের বুঝিয়ে লাভ হবে না ভেবে আমি খেতে গেলাম…
।।
[ধুমাপান কে “না” বলুন]


আমাদের উৎসাহিত করুনঃ




সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। এই লেখাটি কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয় ।

লেখক সম্পর্কেঃ

বুনন সম্পর্কিত তথ্যঃ