শিক্ষার ফল

একদা এক গ্রামে এক রাজা বাস করত। ওই গ্রামের লোকজন রাজার ওরপ খুব রাগান্বিত ছিল। রাজা ছিল খুব আধুনিক, তিনি পুরোনো কোনো জিনিস দু বার ব্যবহার করতেন না, এবং নতুন নতুন কিছু তৈরি করার জন্য সকল প্রজাদের তাগিদ দিতেন।
রাজা প্রত্যেক শিশুকে বাধ্যতামূলক শিক্ষার ব্যবস্থা করেন, এমনকি বৃদ্ধদের জন্য ও শিক্ষাচালু করেন। রাজার এই নিয়ম বৃদ্ধ শিশু কারোই ভালো লাগত না।

তাদের কথা কাজ করে আহার যোগাড় করতে পারলেই তো হলো, এতো কষ্ট করে পড়াশোনা করার কি দরকার?
রাজা এই ব্যাপার টা বুঝতে পেরেছেন যে, তাঁর উপর প্রজারা খুব অসন্তোষ। তাই তিনি একটা বিরাট সভা ডাকলেন সেখানে সকলকে উপস্থিত থাকতে বললেন।

ঠিক সময় মতো সকলে উপস্থিত, এবং রাজা বললেন আমি তিনটি প্রশ্ন করব এর যে উত্তর দিতে পারবে তাকে আমার মন্ত্রী বানানো হবে। প্রজাগন রাজার প্রশ্ন শোনার জন্য অধির আগ্রহ নিয়ে বসে আছে…

-রাজার ১ম প্রশ্নঃ সম্মান কি? কিভাবে করে?

কেউই উত্তর দিতে পারল না।

একজন বালক উত্তর দিল, সম্মান ছোট কিংবা বড় সবাই কে করতে হয়,সম্মানে মানুষের মর্যাদা বাড়ে। একে অপরকে সম্মান করা সকলের কর্তব্য।

-দ্বিতীয় প্রশ্নঃ দেশকে ভালোবাসা কি?

একই বালক উত্তর করলঃ দেশকে ভালোবাসা মানে হলো দেশকে উন্নয়ন করতে হবে এবং এর রক্ষার জন্য জীবন দিয়ে চেষ্টা করতে হবে, সাথে অন্যান্য দেশের সাথে ভালো সম্পর্ক তৈরি করে দেশ উন্নয়ন করতে হবে।

-তৃতীয় প্রশ্নঃ শিক্ষা গ্রহন কেনো করা উচিত?

একই বালক উত্তর দিলঃ শিক্ষা আমাদের জাতিকে উন্নয়নের পথ দেখায়, শিক্ষার মাধ্যমে আমরা যে কোনো সমস্যা সহজে সমাধান করতে পারি, শিক্ষা আমাদেরকে সত্য মিথ্যার পার্থক্য বোঝায়, সুস্থ দেহ সুস্থ মন তৈরি করাই শিক্ষার উদ্দেশ্য।

বালকের উত্তরে রাজা খুব খুশি হল এবং কথামত মন্ত্রীর পদ দিল। এবং রাজা বললঃ হে বালক! তুমি কিভাবে এই প্রশ্নের উত্তর দিলে?

-আমি মনোযোগ দিয়ে পড়তাম, এবং পড়াশোনা করা আমার কাছে খুব ভালো লাগতো। তাদের মতো আমার কাছে পড়াশোনা বিরক্ত লাগে নি, রাজা আপনাকে স্বাগতম! সকলের জন্য শিক্ষা ব্যবস্থা চালু করার জন্য।

উপস্থিত প্রজাগন লজ্জা বোধ করল এবং নিজেদের ভূল বুঝতে পেরে রাজার কাছে ক্ষমা চাইল। শিক্ষার মূল্য বুঝতে পারলএবং সকলে শিক্ষা গ্রহন করার প্রতিজ্ঞা করল।


আমাদের উৎসাহিত করুনঃ




সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। এই লেখাটি কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয় ।

লেখক সম্পর্কেঃ

বুনন সম্পর্কিত তথ্যঃ