পাগল

আরে ভাই,
পাগল কি স্বাদে হয়েছি!
দেখলি তো শুধু বাহিরি আবরণ,
খোলস টাই তো ভেদ করতে পারলি না?
আবার তুই কিনা বুঝবি দুঃখ ব্যথা!

এ দিকটায় দেখ!
বুকের ভেতর কত ব্যথা!
গেঞ্জির নীচে দেখছিস কি?
চামরা ভেদ করার সাধ্য কি তর?

বোকা চাহিনীতে ভাবছিস কি?
ভাবছিস পাগল, বলে টা কি!
বলছে কে তা ভাবিস নি,
বলছি কি তা, সেটাই দেখ!

হাটে-গঞ্জে হাঁটি আমি,
রাস্তার দ্বারে ঘুমাই!
সেই ঘুমেতে শান্তি আছে,
নাই গো শুধু বালাই!

জ্ঞানী তুমি বিজ্ঞ মানব,
তোমার কত ছলা!
দিনের বেলায় সাধু তুমি,
রাতের বেলায় দানব!

দেখি আমি আধার আলোয়,
তোমার কালো ছায়া!

হিংস্র থাবায় বশ করে নাও,
নরম দেহের উষ্ণ ছোয়া!
পাগল আমি দেখছি সবি,
চোখ বুঝে শুধু হাসি!

ভাবি আমি খুব করে আজ,
বিদ্যা তোমায় দিল টা কি?

ময়লা জামার, ছেঁড়া শার্টে!
গল্প আছে ধূলার মত!
তার মাঝে যেই কষ্ট আছে?
সেই সুবাদে পাগল হওয়া!

আরে, আরে, যাচ্ছিস কোথায়?
আর কিছুটা শুনে যা,
শুনবি না তোদের কর্মগাথা?
সুশীল সমাজ করছে যা!

তোমরা সুশীল ব্যর্থ সবাই,
নাম ভাঙ্গিয়ে খাও!
নৈতিকতার ধার ধারো না,
আবার, বিজ্ঞ ভাব নাও!

পালাও! পালাও! পালিয়ে যাও!
মুখ লুকাবে কোথায়?
থু থু মারি তোমার মুখে,
নিকৃষ্ট মানব তুমি!

পাগল আমি বলছি যাতা!
কান দিও না এথায়।
নয়তো আবার বলবে আমায়,
ভিনদেশী এক দালাল!


আমাদের উৎসাহিত করুনঃ




সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। এই লেখাটি কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয় ।

লেখক সম্পর্কেঃ

বুনন সম্পর্কিত তথ্যঃ