‘তুমি মা’

তুমি তো মা;
তাই তোমার কষ্ট পাওয়া মানা
হাসিতে কান্নার রদবদল আছে যে জানা।

তুমি তো মা;
তাই গুণের ভাগটা পাও না
একটা দোষ পেলেই আরে, “ওমুক যে তাঁর মা”!

তুমি তো মা;
তাই নিত্যনতুন খাবারের গন্ধে জিভে জল আসে না
বরাবরতো তোমার শেষপাতের প্লেটটাই পাওনা!

তুমি তো মা;
তাই নিজের কথা ভাবা শোভা পায় না
তবুও তোমার চুলে যে পাক ধরেছে সেটা মনে করাতে কেউ ছাড়ে না!

তুমি তো মা;
তাই তোমার কাপড় কখনো পুরনো হয় না
উপলক্ষ গুলো যেন কেবল’এর খোলস ছেড়ে বাহিরই হতে পারে না!

তুমি তো মা;
তাই ঝাঁঝালো কণ্ঠস্বরও আত্মাভিমানের জন্ম দেয় না
একচিলতে হাসি ফোটাতে বারবার ছোট হবার পরোয়াও করো না!

তুমি তো মা;
তাই নতুন গন্তব্যের খোঁজ মিললেও কথা কও না
ওখানে বসেও আশীর্বাদের ডালি ফাঁকা পড়ে রয় না!

‘তুমি মা’
-মৌ চক্রবর্তী
সময়- রাত১.০০-৩.৪০
তারিখ- ২২-০৩-১৮


আমাদের উৎসাহিত করুনঃ




সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। এই লেখাটি কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয় ।

লেখক সম্পর্কেঃ

বুনন সম্পর্কিত তথ্যঃ