ক্ষুধার জ্বালা

পথ শিশুর পানে চেয়ে দেখ তুমি!
দেখতে পাবে ক্ষুধার জ্বালা কতক্ষাণি!
না হয় থাকো তুমি একটা দিন অনশনে!
তবে বুঝতে পারবে ক্ষুধার ক্লেশ কতক্ষণি!

নয়তো তাকাও তুমি রাস্তার ডাস্টবিনে!
দেখ কত শিশু খাচ্ছে তুলে,
তোমার করা নষ্ট খাবার!
একটু তাকিয়ে দেখ প্লিজ!
নাক কিন্তু ছিটকাতে পারবে না!

নয়তো থাক না তুমি দুইটি দিন উপোস করে!
দেখবে তুমি ধরা পড়েছো সাহেবের খাবার ঘরে!
বিশ্বাস কি হয় না তোমার!
যদি না হয় বিশ্বাস তবেও উপোস করেই দেখ না!

ক্ষুধার জ্বালা যদি বুঝতে চাও!
তবে যাও না তুমি বস্তির যে কোন একটি ঘরে!
দেখবে কি সুখে খাচ্ছে তারা!
তোমার ফেলে দেওয়া পচা নষ্ট খাবার!

আমি লিখছি, তুমি পড়ছো!
তাতেই কি থাকবে সীমাবদ্ধ!
হাত কি বাড়াবে না তুমি পথশিশুর তরে!
মানবতা যে আজ বড্ড অসহায় তোমার ই বেত্রাঘাতে!

আমি লেখক! তুমি আমার পাঠক!
শুধু থেকনা কিন্তু এখানেই ক্ষান্ত!
ছড়িয়ে দিয় তুমি তা সর্বত্র!
মানবতার প্রেমে হাত বাড়িয়ে দিও অকপটে!

সেদিন আমি করবো তোমায় সালাম!
জরিয়ে ধরবো বুকেপিঠে নিবির ভাবে!
যেদিন শুনবো আমি, তুমি হয়েছ সফল!
জাগিয়ে দিয়েছ মানবতা সর্বত্র সবক্ষানে!


আমাদের উৎসাহিত করুনঃ




সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। এই লেখাটি কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয় ।

লেখক সম্পর্কেঃ

বুনন সম্পর্কিত তথ্যঃ