তোমার অপেক্ষা

তোমার অপেক্ষা
শাশ্বত ভৌমিক
রাতের বেলায় চাঁদের সিগ্ধ আলো,
লাগে আমার ভীষণ ভালো।
আর তখন পাশে যদি থাক তুমি,
যেন সব কিছু পেয়ে যাই আমি।।

আর যদি হাতে রাখ হাত,
মন বলে কেয়া বাত।
আর যদি কাধে রাখ মাথা,
গায়েব হয়ে যায় মনের সব ব্যাথা।।

দখিণা বাতাসে উড়ে যখন তোমার কেশ,
তোমায় তখন দেখতে লাগে বেশ।
তোমার ঠোটের মুচকি হাসি,
দেখতে বেশ ভালবাসি।।

তোমার হাতের কাচের চুরির টুং টাং,
আমার মনে ঘন্টা বাজে টং টং।
কানে বাজে তোমার পায়ের নূপুরের ঝুঙ্কার,
মনে যেন করে ভালবাসার হুঙ্কার।।

তুমি যখন ঝুমকা পর কানে,
তা যেন মনকে টানে।
তুমি যখন শাড়ী পর লাল,
মন বলে দেখতে চায় সারাকাল।।

হাটতে চায় তোমার হাত ধরে,
আমি একটা লাল পাঞ্জাবি পরে।
হাটব ওই রাস্তা ধরে,
নিজেদের নানা স্মৃতির কথা মনে করে।।

আজ কোথায় তুমি,
একা অপেক্ষায় আছি আমি।
বলেছিলে থাকবে পাশে সারা জীবন ধরে,
তবে কেন এসে চলে গেলে দূরে।।

তোমার কি মনে পরে না আমায়,
বলেছিলে থাকবে পাশে ভালবাসায়।।
আজও আছি আমি তোমার অপেক্ষায়,
আবার পাশে পাব বলে তোমায়।।


আমাদের উৎসাহিত করুনঃ




সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। এই লেখাটি কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয় ।

লেখক সম্পর্কেঃ

বুনন সম্পর্কিত তথ্যঃ