উনিশ, সাত, এক

মনে পড়ে বন্ধু সেই উনিশ, সাত, এক?
মুক্তির সাধনায় রক্তের আলপনায়
মুক্তিযোদ্ধাদের আত্নত্যাগ।

বিপ্লবী চেতনায় বাংলা মায়ের কান্নায়
প্রাণ আর ইজ্জতের অঞ্জলি,
সাত-ই মার্চের ভাষনে জয় বাংলা শ্লোগানে
ত্রিশ লাখ শহীদের রক্ত ঢালি।

পাক-সেনাদের বানী হিস্যা দো
রানী সখীনাদের ইজ্জতের আহুতি,
রাজাকারদের পোষনে পাক-সেনাদের
শোষনে সখীনা বিবিদের রাতের পর রাতি।

লাইন মে খারা দো বুদ্ধিজীবি সব বাচ্চে কো
পাক-সেনা রাইফেলের আদর,
লাশের মিছিলে বধ্যভূমির মাটিতে
বিদায়ে ছিলোনা কোনো চাঁদর।

আত্নত্যাগের বাঙালি
প্রাণের নয় কাঙালী
বুঝেছিলো জেনারেল নিয়াজীর চেতন,
ডিসেম্বর মাসে তাই বাঙালি উল্লাসে
চুরানব্বই হাজার সেনার আত্নসমার্পণ।

আজি যাহা ভালো অগ্নি তবে জ্বালো
মনে কর বন্ধু সেই একাত্তর সাল,
রক্তের বন্যায় ইজ্জতের কান্নায়
সবুজের বুকে উড়ছে দ্যাখো লাল।


আমাদের উৎসাহিত করুনঃ




সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। এই লেখাটি কর্তৃপক্ষের কোন সম্পাদনা ছাড়াই অথবা উপেক্ষণীয় সম্পাদনা সহকারে প্রকাশিত এবং কর্তৃপক্ষ এই লেখার বিষয়বস্তু, মন্তব্য অথবা পরিণতির ব্যাপারে দায়ী নয় ।

লেখক সম্পর্কেঃ

বুনন সম্পর্কিত তথ্যঃ